মৃন্ময় ১৫

মৃন্ময়,
থাকো তুমি তোমার মত বেঁচে
অনাকাঙ্খিত দুঃস্বপ্নে, এক মুঠো বিষাদ, কিছু নোনা জল
আরো কিছু ঘৃণার সংমিশ্রণ
হয়ে উঠুক তোমার চোখের পাতায় জীবন্ত বালিহাঁস।
যা ছিল বাকি, শেষ হবার আগেই
শেষ হয়ে যাই আমি।
 
তুমি বাঁচো নিজের মত করে
আঙ্গুলের কড়ায় কড়ায় হিসেব
ঘরের কোণে মাকড়শার জালে ছড়ানো অবিশ্বাস
গুটি কয়েক আহত ছাড়পোকা এদিক ওদিক বিধ্বস্ত
জীবন কি বুঝে জীবনের সাথে সন্ধি হয়না!
 
হয়তো আবার আসবো ফিরে এই পৃথিবীর বুকে
যদি আসি ফিরে পৃথিবীর মানুষ হয়ে,
তবে সময় কে পেরেক ঠুকে দেবো ঘড়ির কাঁটার গায়ে।
ভুলে ভুলে জনম ধরে, হেলায় যে সুখ জলাঞ্জলি দিয়ে
স্বাধীনতা হরণের উদ্দ্যম নৃত্যে মেতেছি বহুকাল ধরে
পুষিয়ে নেবো সুদে আসলে মহাজনের টুঁটি চেপে ধরে।
 
হয়তো আসবো ফিরে মাকড়শা নয় বাবুই পাখি হয়ে,
গুটি গুটি পায়ে বাসস্থানের খোঁজে এদিক ওদিক ছুটে বেড়াবো
হয়তো পোষা বিড়াল হয়ে গুটিয়ে থাকবো তোমার পায়ের কাছে,
গা ঘেঁষে
কিংবা, অষ্টাদশী চাঁদ হয়ে মাঝ রাতে তোমায় চুপিসারে আলো বিলাবো;
লজ্জ্বাবতী লতা হয়ে পা জড়িয়ে রবো তোমার চলার পথে!
 
এ জনমে বাকি নেই আর কিছু।
তুমি ক্লান্ত, আমিও পথভ্রষ্ট!
চোখের পাতায় ঘোর অমাবস্যা
জীবন কি বুঝে মেনে নেওয়া আর মানিয়ে নেয়া এক নয়!
তুমি থাকো তোমার মত বেঁচে
যা ছিল বাকি, শেষ হওয়ার আগেই;
শেষ হয়ে যাই আমি।